অনৈতিক প্রস্তাবে অস্বীকৃতি : কলাপাড়ায় সংখ্যালঘু বিধবাকে বিবস্ত্র করে আ.লীগ নেতার শ্লীলতাহানি

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি করতে না পেরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিধবা মহিলাকে বিবস্ত্র করে বেদম মারপিট ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে।

এ ঘটনার বাইরে গাজীপুরের কালীগঞ্জে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে ষষ্ঠ শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি জানান, পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি করতে না পেরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক বিধবাকে বেদম মারপিট ও শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ নেতা ইউপি মেম্বার আবদুস সোবহানের বিরুদ্ধে। আহত অবস্থায় ওই গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
গত রোববার রাতে কলাপাড়া পৌর শহরের নাচনাপাড়া এলাকায় বঙ্গবন্ধু কলোনির এই ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই বিধবা কলাপাড়া থানায় একটি মামলা দাখিল করেছেন। তিনি একমাত্র ছেলেকে নিয়ে চরম নিরাপত্তহীনতায় রয়েছেন।
পুলিশ তাত্ক্ষণিক অভিযুক্ত তিনজনকে আটক করেছে। এরা হচ্ছে শৈলেন বেপারী, বাবুল মিস্ত্রি ও মূল হোতা ইউপি মেম্বার সোবহান বিশ্বাসের ছেলে রিপন বিশ্বাস।
ওই বিধবা মহিলা জানান, দীর্ঘদিন তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল একই এলাকার ইউপি মেম্বার আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সোবাহান বিশ্বাস। এতে রাজি না হওয়ায় বিভিন্নভাবে ভিটি থেকে উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করে আসছিল মেম্বারসহ ওই এলাকার কল্যাণ বেপারী, শৈলেন বেপারীসহ একটি চক্র। অবশেষে গত রোববার রাতে ঘর থেকে টেনে-হিঁচড়ে বের করে রড, লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি ঘটানো হয়েছে। ওই রাতে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় রানীকে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
বৃহস্পতিবার দুপুরে কলাপাড়া প্রেস ক্লাবে গিয়ে তিনি সাংবাদিকদের জানান, তিনি নিতান্ত গরিব মানুষ। একটি খাবার হোটেলে রান্নার কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। বর্তমানে তার এবং একমাত্র ছেলের জীবন বিপন্নের আশঙ্কার কথাও তিনি ব্যক্ত করেন।
চিকিত্সক আব্দুল মতিন জানান, রানী এখন অনেকটা সুস্থ। তবে তার বাম চোখের নিচে ঘুষির আঘাতে কাল দাগ হয়ে গেছে। কলাপাড়া থানার ওসি কেএম তারিকুল ইসলাম জানান, থানায় অবগত করার সঙ্গে সঙ্গে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
কালীগঞ্জে ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানি

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি জানান, কালীগঞ্জে ষষ্ঠ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রনির অভিযোগ পাওয়া গেছে।
গত বুধাবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর দাখিলকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নামা রাথুরা গ্রামের নূর মোহাম্মদ শেখের মেয়ে ও তারাগঞ্জ এইচএন উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে (১২) প্রতিবেশী মুদি ব্যবসায়ী ও কাপাসিয়ার খিলগাঁও গ্রামের মৃত মোফাজ্জল হোসেনের বখাটে ছেলে নুরুল আমিন খান (৪৫) প্রায় সময়ই ইভটিজিং করত। গত ২৮ ডিসেম্বর সকালে ওই ছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে নুরুল আমিন খান শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এ সময় ছাত্রীটির ডাকচিত্কারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে বখাটে নুরুল আমিন দৌড়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয় ব্যক্তিরা ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিলেও বিবাদীর হুমকির কারণে তারা বিচার করতে অসম্মতি জানায় বলে ছাত্রীর ভাই অভিযোগকারী রাসেল জানান।

সূত্র: আমার দেশ

Advertisements
This entry was posted in in Bangla and tagged , , . Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s