সংখ্যালঘু নারীকে ধর্ষণ, আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার

২০ জানুয়ারি,২০১৫

নিজস্ব প্রতিনিধি

আরটিএনএন

সাভার: বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সংখ্যালঘু এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ঢাকার ধামরাইয়ের সোয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং ধামরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সোমবার রাতে মামলা দায়েরের পরপরই তাকে সাভার ব্যাংক কলোনি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

সোমবার সন্ধ্যায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজন হাফিজুরের বিরুদ্ধে এলাকায় বিক্ষোভ করে।

ওই নারী জানান, বছর দেড়েক আগে হাফিজুর তাকে দেখে পছন্দ করেন। এর পর থেকে তাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতে থাকেন। একপর্যায়ে হাফিজুরের ভয়ে তার স্বামী তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বাধ্য হন। স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার পর বছর খানেক আগে হাফিজুর তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সাভার নিয়ে আসেন।

সাভার আনার পর তাকে স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে সাভার পৌরসভার ব্যাংক কলোনি মহল্লায় বাসা ভাড়া নেন। এরপর থেকে তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ওই বাসায় বসবাস করছিলেন।

এ সময় তিনি বিয়ে করার জন্য হাফিজুরকে চাপ দেন।

সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার বিয়ে নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে হাফিজুর তাকে মারধর করেন। এ ঘটনায় গত শনিবার তিনি সাভার মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। কিন্তু পুলিশ মামলা না নিয়ে নানা অজুহাতে তাকে ঘুরাচ্ছিলেন।

এ অবস্থায় এলাকার লোকজন সোমবার সন্ধ্যায় হাফিজুরের বিরুদ্ধে মিছিল করে। পরে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে ঢাকার পুলিশ সুপার হাবিবুর রহমানের নির্দেশে সাভার মডেল থানা-পুলিশ সোমবার রাতে মামলাটি রেকর্ড করে।

http://www.rtnn.net/bangla//newsdetail/detail/1/4/98157#.VMB07yvF9jI

Advertisements
This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s